ঢাকা১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মৌলভীবাজারে সাইবার আইনে সাংবাদিক গ্রেপ্তার

বার্তা বিভাগ
মার্চ ১৫, ২০২৪ ১০:১৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

তিমির বনিক,মৌলভীবাজার:

মৌলভীবাজারে আরও এক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে সাইবার আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই মামলায় বৃহস্পতিবার সিলেটের সাইবার ট্রাইব্যুনাল আইনে সাংবাদিক মশাহিদ আহমদ এর জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এই ঘটনায় মৌলভীবাজারে কর্মরত সাংবাদিকরা শুক্রবার (১৫ই মার্চ) জরুরী সভা করে পেশাগত দায়িত্বে নিরাপত্তাহীনতায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করেছেন।

মৌলভীবাজার অনলাইন প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ জানান, প্রায় ছয় মাস পূর্বে মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার শাহবাজপুর চা বাগানের ভূমি নিয়ে আশপাশের গ্রামের নীরিহ মানুষের উপর পুলিশ গুলি চালায়, নির্যাতন করে এবং মামলা দেয়। সংবাদটি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়।

এই সংবাদ পরিবেশন করায় মৌলভীবাজার অনলাইন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও জাতীয় দৈনিক আমাদের কন্ঠ ও দৈ: সিলেটের বানী পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি মো. মশাহিদ আহমদসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে শাহবাজপুর চা বাগানের ব্যবস্থাপক সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেন।

বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) সাইবার ট্রাইব্যুনাল সিলেট এ সাংবাদিক মশাহিদ আহমদ হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে বিজ্ঞ আদালত জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মৌলভীবাজারের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, মুক্ত গণমাধ্যম বিহীন জনগণের মুক্তি অসম্ভব। সাংবাদিক মশাহিদ আহমেদ দীর্ঘদিন সততা ও নিষ্টার সাথে কাজ করে আসছেন। তিনি অন্যায়ের বিরুদ্ধে বরাবর আপোষহীন ছিলেন। এই রকম পেশাদার সাংবাদিকের হাতে ‘হাত কড়া’ মানে সাধারণ জনগণের কণ্ঠরোধ করা, সত্যকে গলা টিপে হত্যা করা। তাই অনতিবিলম্বে সাংবাদিক মশাহিদ আহমেদ এর মুক্তি দাবি করেন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ।

এর প্রতিবাদে মৌলভীবাজার অনলাইন প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংগঠন, মৌলভীবাজার জেলা কমিটি যৌথভাবে আগামীকাল শনিবার (১৬ মার্চ) দুপুরে মৌলভীবাজার চৌমুহনীতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করেছেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে হয়। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বে-আইনি। যোগাযোগ: হটলাইন: +8801602122404 ,  +8801746765793 (Whatsapp), ই-মেইল: [email protected]