ঢাকা২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

গাইবান্ধায় ইউপি সদস্য হত্যা মামলার আসামী চেহারা পরিবর্তন করেও শেষ রক্ষা পেলনা

বার্তা বিভাগ
অক্টোবর ৯, ২০২৩ ১০:৫৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আনোয়ার হোসেন, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধিঃ
গাইবান্ধার পলাশবাড়িতে ইউপি সদস্য বাদশা মিয়া হত্যা মামলার প্রধান আসামী পাপুল মিয়াকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (৯ অক্টোবর) সকালে পলাশবাড়ি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিবাকর অধিকারী গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নিহত বাদশা মিয়া ওই গ্রামের মৃত আমির উদ্দিনের ছেলে ও বেতকাপা ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত ইউপি সদস্য। এছাড়া তিনি বেতকাপা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৮ নং ওয়ার্ডের সভাপতি ছিলেন।

ওসি দিবাকর অধিকারী জানান, এর আগে রোববার রাতে রাজধানীর মিরপুর এলাকা থেকে আসামী পাপুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযুক্ত পাপুল গ্রেফতার এড়াতে নিজের চুল, দাঁড়ি কেটে চেহারা পরিবর্তন করেছিলেন।

উল্লখ্য, গাইবান্ধার পলাশবাড়িতে রাতে চুরি আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় স্থানীয়রা কয়েকজন যুবককে প্রহরী হিসেবে নিয়োগ করে। সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, বিনা প্রয়োজনে রাত ১০টার পর বাড়ির বাইরে কাউকে অবস্থান করতে দেয়া হবে না।

গত (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত ১২টার দিকে একই গ্রামের মোসলেম আকন্দ ভোলার ছেলে পাপুল আকন্দের পথরোধ করেন খায়রুল নামের এক প্রহরী। এ নিয়ে দু’জনের মধ্যে বাক-বিতণ্ডা শুরু হয়। খবর পেয়ে বিষয়টি মিমাংসার জন্য এগিয়ে আসেন ইউপি সদস্য বাদশা মিয়াসহ অন্যান্যরা। এ সময় বাদশা মিয়ার সঙ্গে বাক-বিতণ্ডা ও তর্কে জড়িয়ে পড়েন পাপুল। উভয়পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পাপুল তার হাতে থাকা ছুরি দিয়ে বাদশা মিয়ার বুকে এলোপাথারি আঘাত করেন। এ সময় পাশে স্বপন ও সবুজ নামে দুই ভাই পাপুলকে আটকাতে গেলে তাদেরকেও ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান তিনি।

পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বাদশা মিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে হয়। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বে-আইনি। যোগাযোগ: হটলাইন: +8801602122404 ,  +8801746765793 (Whatsapp), ই-মেইল: [email protected]