ঢাকা২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

উপকূলীয় অঞ্চলে পানির নায্যতার দাবিতে কাজ করেছে জনকল্যাণ সংস্থা

বার্তা বিভাগ
জুলাই ৫, ২০২৩ ৭:৩৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

তাপস মজুমদার,(কালিগঞ্জ- সাতক্ষীরা)প্রতিনিধিঃ

বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সাতক্ষীরা জেলার অন্যতম উপজেলা কালিগঞ্জ। এ উপজেলার সীমান্ত অঞ্চলের শিশু খুশি, বয়স মাত্র ৫(পাঁচ) ক্লাইমেট চেঞ্জ বা জলবায়ু পরিবর্তন কি! সেটা সে জানে না। কিন্তু সে জানে ভাত খাওয়ার আগে তাকে পানি আনতে হবে। পানি সরবরাহের জন্য তাকে বহুদূর পর্যন্ত হেঁটে যেয়ে পানি আনতে হয়।

যেখানে বাংলাদেশের সংবিধানে মৌলিক মানবিক চাহিদার কথা এবং পূরণের কথা প্রকাশিত হয়েছে সেখানে বাংলাদেশের উপকূলের শিশুর খাবার পানির জন্য প্রতিনিয়ত জীবন যুদ্ধ চালিয়ে যেতে হচ্ছে। খুশি যেখানে তার সুখী সমৃদ্ধ জীবনে প্রত্যাশা করে সেখানে প্রতিনিয়ত তাকে সম্মুখীন হতে হচ্ছে জলবায়ু পরিবর্তনের বিভিন্ন হুমকির মধ্য দিয়ে।

কথিত আছে “পানির অপর নাম জীবন” কিন্তু আমরা উপকূলীয় অঞ্চলের মানুষ কতটুকু সে পূরণের যোগ্যতা অর্জন করেছি? অর্জন করেছি শুধু মানুষকে হুমকির মুখে পতিত করার জীবন, বিলাসিতা ব্যবস্থায় পরিচালনা, হুমকির অন্যতম মাধ্যম হিসেবে নিজের আত্মপ্রকাশ! যে শিশুটি তার শৈশবের আনন্দঘন মুহূর্তগুলো অতিবাহিত করবে সে সময়ে বিশুদ্ধ পানির জন্য যুদ্ধ করতে হচ্ছে।

বিশুদ্ধ পানির সন্ধানে খুশির মতো হাজারো শিশুকে প্রতিনিয়ত পাড়ি দিতে হচ্ছে মাইলের পর মাইল পথ। তা সত্ত্বেও সে বিশুদ্ধ পানির চাহিদা পূরণে নিজেকে আত্মনিয়োগ করতে পারছে না। দারিদ্র পরিবারের সন্তান নিজের মৌলিক মানবিক চাহিদা পূরণ তো দূরের কথা বিশুদ্ধ পানির চাহিদা মেটাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে তার ও তার পরিবারকে।

এ বিষয়ে খুশির বাবার কাছে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, কি আর করব? পরিবেশের তাপমাত্রা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে, আমার বয়সে আমি এত গরম কখনো সহ্য করিনি। নদীতে মাছ ধরে সংসার চলে আমাদের। দুর্যোগ হলেই দিন কাটাতে হয় নিরবিচ্ছিন্নভাবে। সেই সাথে সবচেয়ে বড় সমস্যা আমাদের পানির সমস্যা।

নোনা অঞ্চলের পানি অত্যন্ত লবণ। আমাদের পানি নিতে যেতে হয় দুই থেকে তিন কিলোমিটার দূরে। খুশি আমাদের জন্য পানি আনতে এই পথ প্রতিদিন যায়। ওর লেখাপড়ার সুযোগ সেভাবে দিতে পারি না। যেখানে আমাদের দিন আনা, দিন খাওয়া সেখানে ওর পড়াশোনা করানোটা আমার কাছে অনেক বেশি আশ্চর্য মনে হয়।

অনেক শুনেছি আমাদের এখানে পানির অনেক কিছু হবে। কিন্তু ফলে মাত্র কিছুই হয় না। অনেক কষ্টের মধ্যে দিন কাটাতে হয় আমাদের। দেখার কেউ নেই!
উপকূল অঞ্চলের মানুষের প্রায় প্রতি সময় বিশুদ্ধ পানির ব্যবহার ও সরবরাহ তুলনায় পূরনে অপ্রতুল।

প্রথমত বিশুদ্ধ পানি এ অঞ্চলে অনেক অংশ প্রাপ্যতার হার কম, দ্বিতীয়ত যতোটুকু ব্যবহারযোগ্য পানি রয়েছে তা ব্যবহারের জন্য অর্থ ব্যয় মুখ্য বিষয়। উল্লেখ্য এ অঞ্চলের মানুষের বিশুদ্ধ পানি প্রতি লিটার পানি প্রায় ১০ থেকে ১২ টাকা দরে কিনতে হয়। এ অঞ্চলের মানুষ প্রায় দুই কিলোমিটার থেকে ৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে খাবার পানি সংগ্রহ করে অথবা প্রকৃতি থেকে পানি সংরক্ষণ করে দীর্ঘদিন ব্যবহার করছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে হয়। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বে-আইনি। যোগাযোগ: হটলাইন: +8801602122404 ,  +8801746765793 (Whatsapp), ই-মেইল: [email protected]