ঢাকা১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মানিকগঞ্জে সরকারী বিদ্যালয় ব্যাক্তির নামে করার চেষ্টা, বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

বার্তা বিভাগ
জুন ২৪, ২০২৩ ১০:৩৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আমিনুল ইসলাম, মানিকগঞ্জ:

৫০ বছরের পুরন ঐতিহ্যবাহী মুলজান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করার অপচেষ্টায় এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। তারা দীর্ঘদিনের ঐতিহ্যবাহ এই বিদ্যালয় নাম পরিবর্তন না করার জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করেছেন।

জানা গেছে, ১৯৭৩ সনে সদর উপজেলার ইউনিয়নের মুলজান নামক স্থানে এলাকাবাসীর উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত হয় মূলজান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।
দেশ স্বাধীনের পর বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হলেও পরবর্তিতে বিদ্যালয়টি সরকারী করণ হয়। এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগীতায় বিদ্যালয়টি সুন্দরভাবে পরিচালিত হয়ে আসছে। কিন্তু কয়েকদিন আগে এলাকাবাসীকে না জানিয়ে কৌশলে প্রধান শিক্ষকের সহযোগীতায় সরকারী বিদ্যালয়টিকে দীঘি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আখতার উদ্দিন আহমেদের বাবা মৃত আনিছ উদ্দিন আহমেদের নামে নাম করনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রক্রিয়াটি অতি গোপনে করা হলেও কিছুদিনের মধ্যে বিষয়টি এলাকাবাসী জানতে পেরে বিক্ষুদ্ধ হয়ে প্রধান শিক্ষককে এর প্রতিবাদ জানান।পরবর্তিতে এলাকার সকল শ্রেণী পেশার লোক জন বিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন না করার জন্য সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা-উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা,জেলা প্রশাসক সহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেন।

মুলজান প্রগতি সংঘের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম খান ওয়াসিম বলেন, মুলজান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় নামটি আমাদের হৃদয়ে গাথা। এটি পরিবর্তন করে ব্যাক্তির নামে করা হলে এলাকাবাসী সংঘাতে জড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

মুলজান প্রগতি সংঘের সাবেক সভাপতি সানাউল হক টুলু বলেন, মুলজান একটি শান্তিপ্রিয় এলাকা। সরকারী বিদ্যালয় ব্যাক্তির নামে করার চক্রান্তকে কেও মেনে নিচ্ছে না। সকলের ভিতবে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। দ্রুত এর স্থায়ী সমাধান না হলে অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটে যেতে পারে।
মুলজান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান উদ্যোক্তা ও মুলজান উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক খোন্দকার আক্কাছ আলী বলেন, ১৯৭৩ সালে এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগীতায় বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। একটি মহল এলাকার শান্তি বিনষ্ট করার জন্য বিদ্যালয় নিয়ে ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। যদি কোন অসৎ কর্মকর্তা এই অসৎকাজে সহযোগীতা করে নাম পরিবর্তন করেন তাহলে এলাকায় অশান্তি সৃষ্টি হবে। দ্রুত এধরনের চিন্তা থেকে সরে এসে এলাকায় শান্তি পুনঃ প্রতিষ্ঠা করা উচিৎ।

এ বিষয়ে দিঘী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আখতার উদ্দিন বলেন, আমার বাবা মরহুম আনিস উদ্দিনের উক্ত বিদ্যালয় এর জমি দাতা। শুধু এই জমি নয়, স্কুল, মসজিদ মাদ্রাসা সহ অনেক প্রতিষ্ঠানে তিনি জায়গা দান করেছেন। তার সম্মানে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি ‘আনিস উদ্দিন মুলজান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়’ নামকরণের প্রস্তাবক করেছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তাপস কুমার অধিকারী বলেন, মুলজান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কে ব্যাক্তির নামে না করার দাবীতে গণস্বাক্ষরকৃত একটি অনুলিপি পাওয়া গেছে।
বর্তমানে আমি বদলিজনিত কারণে মানিকগঞ্জের নেই। তাই নতুন কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করুন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে হয়। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বে-আইনি। যোগাযোগ: হটলাইন: +8801602122404 ,  +8801746765793 (Whatsapp), ই-মেইল: [email protected]