ঢাকা২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শ্যামনগরে অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ধর্ষণের অভিযোগে ইউপি সদস্য আটক

বার্তা বিভাগ
জুন ১৩, ২০২৩ ১০:২১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

তাপস মজুমদার,(কালিগঞ্জ-সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে অষ্টম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণের ঘটনায় শহীদুল ইসলাম আবির ওরফে আবিয়ার রহমান (৫০) নামে এক ইউপি সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৩ জুন) তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে সোমবার (১২ জুন) গভীর রাতে উপজেলার পশ্চিম পোড়াকাটলা এলাকার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার শহিদুল ইসলাম আবির শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও পশ্চিম পোড়াকাটলা গ্রামের মোঃ শফিকুল ইসলামের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়নের অষ্টম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে (১৭) ২০২২ সালের ২৮ ডিসেম্বর রাতে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ করেন আবিয়ার রহমান। এসময় তিনি মোবাইলফোনে ভিডিও ধারণ করে রাখেন। সেই ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ওই কিশোরীকে প্রায়ই ধর্ষণ করতেন তিনি। একপর্যায়ের মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে নিয়ে তার গর্ভপাত করান ইউপি সদস্য আবিয়ার রহমান। এ ঘটনা জানাজানির পর মেয়েটির পরিবারের পক্ষ থেকে বিয়ের জন্য চাপ দেওয়া হলে আবিয়ার রহমান তাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানান।

শ্যামনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরুল ইসলাম বাদল জানান, ভুক্তভোগী কিশোরীর নানি বাদী হয়ে সোমবার (১২ জুন) তিনজনকে আসামি করে শ্যামনগর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন (মামলা নং ৩৩/২৫২)। এ মামলায় ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলাম আবির ওরফে আবিয়ার রহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে হয়। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বে-আইনি। যোগাযোগ: হটলাইন: +8801602122404 ,  +8801746765793 (Whatsapp), ই-মেইল: [email protected]