ঢাকা১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সন্তানকে অস্বীকার করে বালিশ চাপা দিয়ে শিশুর প্রাণ কেড়ে নিল বাবা

বার্তা বিভাগ
মে ১৩, ২০২৩ ৩:০৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মোঃ মাসুদ রানা, নীলফামারী: 

নীলফামারীতে ইয়াহিয়া খান আপন নামে চার মাস বয়সী ছেলে সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা অভিযোগ উঠেছে বাবার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় বাবা সৈয়দ জাকারিয়া শেখকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার(১৩মে) সকালে নীলফামারী পৌরশহরের দক্ষিণ হাড়োয়া ফকিরগঞ্জ বাজার এলাকার ভাড়া বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়।

সৈয়দ জাকারিয়া শেখ (৫৩) নীলফামারী সদর উপজেলার চড়াইখোলা ইউনিয়নের টেক্সটাইল শেখ পাড়া এলাকার মরহুম সৈয়দ ওমর আলী ছেলে। সৈয়দপুরের সোনাখুলি মুন্সিপাড়া কামিল মাদ্রাসার শিক্ষক।

স্থানীয় ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, ৯ বছর আগে প্রথম স্ত্রী মারা যাওয়ায় আয়েশা সিদ্দিকাকে দ্বিতীয় বিয়ে করেন জাকারিয়া। চার মাস আগে তাদের ঘরে একটি ছেলে সন্তান জন্ম নেয়। জাকারিয়া গত চারদিন আগে এসেছে স্ত্রী ও সন্তানের কাছে শুক্রবার গভীর রাতে কান্নাকাটি করায় বিরক্ত হন জাকারিয়া। বিরক্ত হয়ে শিশুটির মুখে বালিশ চাপা দেন ও তার স্ত্রীকে মারধর করেন তিনি। বালিশ চাপাতে মারা যায় শিশুটি। খবর পেয়ে শনিবার সকালে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে বাবা জাকারিয়াকে আটক করে পুলিশ।

শিশুটির মা আয়েশা সিদ্দিকা অভিযোগ করে বলেন আমার স্বামী আমার সন্তানকে অস্বীকার করে প্রায় আমার উপর অন‍্যান অত‍্যাচার করেন মারধর করে। হঠাৎ করে আমার শিশু সন্তান আপন কান্নাকাটি করেছিল। তার বাবা ছেলেটার কান্নাকাটি সহ্য করতে পারে বালিশ চাপা দেয় মুখে আমি আটকাতে গেলে আমাকেও মারধর করে।

এ বিষয়ে নীলফামারী অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমিরুল ইসলাম বলেন, দ্বিতীয় বিয়ের দীর্ঘদিন পর সন্তান হওয়ায় সন্তানকে অস্বীকার ও স্বীকৃতি দেওয়া নিয়ে পারিবারিক ঝামেলা ছিল। গতরাতে চার মাসের শিশুকে হত্যা করেন জাকারিয়া। ঘটনার পরপরই আমরা তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই।শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এঘটনায় আইনি ব্যবস্থা গ্রহন প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে হয়। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বে-আইনি। যোগাযোগ: হটলাইন: +8801602122404 ,  +8801746765793 (Whatsapp), ই-মেইল: [email protected]